ভারতীয় সিরিয়াল : বিনোদন নাকি অভিশাপ?

ভারতীয় সিরিয়াল : বিনোদন নাকি অভিশাপ?

মো. আরিফ উল্লাহ্:
বেঁচে থাকা আর মনের তৃষ্ণা মেটাতে বিনোদনের তুলনা হয়না। আর আমাদের বিনোদন দিতে প্রায় অনেক ধরনের মিডিয়া কাজ করে জাচ্ছে, টেলিভিশন, রেডিও, পত্রিকা, ইন্টারনেট এর মত আরো কত কি,বর্তমানে দেশে আমাদের দেশীয় ৩০ টি সহ প্রায় দুইশ টির ও বেশি বিদেশী টিভি চ্যানেল রয়েছে ও দেশীয় প্রায় ২৯টি রেডিও চ্যানেল রয়েছে, কিন্তূ টেলিভিশন ই বহুল জনপ্রীয়,কারণ এর মাধ্যমে আমরা সকল কিছু পেয়ে থাকি, যেমন; সকালের কোরাআন তিলাওয়াত,/ গিতা পাঠ থেকে শুরু করে সংবাদ, নাটক, নাটিকা, চলচিত্র, খেলাধুলা, সংলাপ সবই। প্রশ্ন হচ্ছে তার পরেও আমরা কেন ইন্ডিয়ান সিরিয়াল দেখি? যেখানে আমাদের নাটকের মান এর তুলনায় অনেক ভালো? এমন কি ছোট ছোট শিশুরা মাতৃভাষা যতোটা বলতে পারেনা তার থেকে হিন্দি ভাষা ভালো বলতে পারে। বাসায় গিয়ে সংবাদ শোনবে সেই সৌভাগ্যবান পুরুষের সংখ এখন খুব কম ই আছে কারণ তখন যে আকসারা, বেহনা, কিরনমালা, রাখিবন্ধন, ভাবিজি ঘর পে হে নামে আরো অনেক সিরিয়াল গুলি দেখানো হয়, অবাক করা কথা হল এই নেশা এখন শিশু,কিশোর/কিশোরি থেকে বৃদ্ধ সবাইকে ছুয়ে গেছে। আপনি হয়তো ভাবছেন এসব দেখলে কি হয়? তবে একটো দেখি আমরা কি অর্জন করছি এই সিরিয়াল দেখে,আমরা আমাদের দেশ কে অপমাননা করছি কারণ আমরা দেশীয় মিডিয়াকে অবজ্ঞা করছি। পৃথীবির বুকে শুধু আমরা ই এক মাত্র জাতি যে জাতি মাতৃভাষার জন্য জীবন উৎসর্গ করেছি আর আমাদের ছেলে – মেয়েরা ই আজ বাংলা ভাষার চেয়ে হিন্দি ভাষায় নিজেকে জাহির করতে চায়। এছাড়াও এর ফলে পরকিয়া প্রেম বাড়ছে, পারিবারিক অসন্তোষের সৃস্টি হচ্ছে, সুতি,তাত ইত্যাদির কাপড়ের পরিবর্তে আকসারাক ও পাখি ড়্রেসের নামে আমরা এমন কাপড পরিধান করছি যা মানব দেহের জন্য মোটেও ভালো নয়, আপনার বিনোদন ধারনাকে গন্ডিভূত করে ফেলছে এই সিরিয়াল, রোমান্টিকতার নামে এ যেন যৌন প্রণোদনা প্যাকেজ। পড়ালেখা বাদ দিয়ে সিরিয়াল নিইয়ে মগ্ন থাকে আমাদের স্কলে পড়ুয়া শিক্ষার্থীরা আর রিতিমত মৃত্যুর কারণও হচ্ছে এই সিরিয়াল। তার সাম্প্রতিক উদাহরণ বিগত ২২-১২-২০১৬ তারিখে টাঙ্গাইল শহরের কলেজপাড়া এলাকায় এক নারী অপর নারীকে পিটিয়ে জখম করে এবং পরবর্তীতে সে মারা যায়। এছাড়াও ঈদ, পুজা, নববর্ষ বা অন্যান্য উৎসবে ভারতীয় মিড়িয়া গুলি হরেক রকমের বাহারি নকশার কাপড় তাদের সিরিয়ালের মাধ্যমে প্রচার করে আর আমাদের দেশের নারীরা এর জন্য আত্নহত্যা, বিবাহ বিচ্ছেদের মত কাজ করতে ও ভয় পায়না।
এরাতো বিশেষ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে তাদের দায় এডিয়ে যাচ্ছে কিন্ত আপনাকে যা দিয়ে গেল তার থেকে রেহায় কিভাবে পাবেন? যারা তাদের মিডিয়ার সার্থে আমাদের টিভি চ্যানেল কে প্রবেশাদেশ দিচ্ছেনা আর সেই আমরা তাদের এতো বড ভক্ত যে বর্তমান বড় বড় কোম্পানি গুলিও তাদের বিজ্ঞাপন ভারতিয় মিডিয়ায় দিতে বাধ্য হচ্ছে। এ অবস্থা থেকে উওরণের জন্য প্রধান ভূমিকা রাখতে হবে আমাদের গণমাধ্যমকে, মান সম্যত ও বিরতিহীন সম্প্রচারণ এবং বিভিন্ন পদক্ষেপের মাধ্যমে। সচেতনতা বৃদ্ধি করা ও দেশপ্রেমের মাধ্যমে এ সমস্যা সমাধান করা যেতে পারে। এটাও সত্য যে আমাদের দেশীয় মিডিয়া গুলিও দায় এড়াতে পারেনা তবুও চলোন সকলে মিলে দেশ কে ভালবাসি, নিজের ভাষাকে ভালবাসি।

লেখক: শিক্ষার্থী, আইন বিভাগ (প্রথম ব্যাচ), কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি
arifcbiu@gmail.com

 

(134) বার এই নিউজটি পড়া হয়েছে




মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Optimization WordPress Plugins & Solutions by W3 EDGE